Share this Post

মুসলমানের গোটা জীবনই হতে পারে পুণ্যময়। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন তাঁর অনুগ্রহে আমাদের এমন একটি দ্বিন দান করেছেন, যার মধ্যে মানবিয় প্রয়োজনের কোনো দিককেই অবহেলা করা হয়নি। পবিত্র কোরআনে পৃথিবীতে মানব সৃষ্টির যে উদ্দেশ্য বর্ণনা করা হয়েছে, তা হলো, আল্লাহ তাআলা বলছেন, “আমি মানুষ ও জীনকে আমার ইবাদতের উদ্দেশ্যেই সৃষ্টি করেছি।’ (সুরা : জারিয়াত, আয়াত : ৫৬)

মানুষকে সৃষ্টি করার মূল উদ্দেশ্যই যখন এই ইবাদত করা, তখন কর্তব্য ছিল, মানুষ সকাল-সন্ধ্যা, দিবারাত্রি আর কোনো কাজ করবে না, শুধু আল্লাহর ইবাদত করবে। কিন্তু আল্লাহ তাআলা তাঁর অসীম অনুগ্রহে মানুষ সৃষ্টির আসল উদ্দেশ্য ইবাদত হওয়া সত্ত্বেও তাকে তার মানবীয় প্রয়োজন পূরণ করারও অনুমতি দিয়েছেন। অর্থাৎ- সে নিজের ও পরিবার-পরিজনের জীবনোপকরণ এবং বসবাসের চাহিদা পূরণ করতে পারবে। এ কারণে আল্লাহ তাআলা এমন এক দ্বিন আমাদের দান করেছেন, যার মাধ্যমে আমরা আমাদের জীবনের সব চাহিদা পূরণ করতে পারি। শুধু প্রয়োজন পূরণ পর্যন্তই শেষ নয়; বরং এগুলোকে নেক আমলেও পরিণত করতে পারি।

আল্লাহ তাআলা আমাদের এমন এক দ্বিন দান করেছেন, এমন এক আদর্শ আমাদের দিয়েছেন, যার মাধ্যমে জীবনের নানাবিধ প্রয়োজনও পূরণে বাধা থাকে না। আয়-উপার্জন, ব্যবসা-বাণিজ্য সব কিছুই গতীশীল থাকে। শুধু যে গতীশীল থাকে এমন নয়-বরং ব্যবসা একটি নেক আমলের রূপ লাভ করে।